জেনে নিন প্যারাসিটামল সম্পর্কে ১০টি অজানা তথ্য যা আপনার কাজে লাগবে

জেনে নিন প্যারাসিটামল সম্পর্কে ১০টি অজানা তথ্য যা আপনার কাজে লাগবে

প্যারাসিটামল চিনে না এমন লোক খুঁজে পাওয়া সত্যিই অনেক দুষ্কর। সবাই জীবনে কম বেশি এই ঔষধটি সেবন করেছেন। জ্বর, মাথাব্যাথা কিংবা অন্য কোন সাধারণ ব্যাথা সারাণোর জন্য সবারই প্রথম পছন্দ হলো প্যারাসিটামল। এই সাধারণ ঔষধটির কিন্তু রয়েছে অনেক গুণাগুণ। অ্যান্টিবায়োটিক না হওয়াতে অনেক সময় ডাক্তাররাও জ্বরের প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে প্যারাসিটামল খেতে পরামর্শ দেন। এই ঔষধটি কে সবাই চিনলেও অনেকেই এই ঔষধ সম্পর্কে  বিস্তারিত কিছু জানে না।  আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করবো এই ঔষধ সম্পর্কে না জানা ১০টি তথ্য।

১. প্যারাসিটামল সাধারণত ব্যথানাশক ও তাপমাত্রা কমাতে ব্যবহৃত হয়। এ কারণে জ্বরের প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে ডাক্তারগণ এই ঔষধটি খেতে বলেন। তবে হাতের নাগালে পাওয়া যায় বলে অনেকেই ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াও এই ঔষধটি সেবন করে থাকেন।

২. পৃথিবীতে একশটিরও বেশি ওষুধের সাথে মিশ্রিত করে এটি ব্যবহার করা হয় এবং বিশ্বজুড়ে ওটিসি ড্রাগ হিসেবে পাওয়া যায়।

৩. প্রাপ্ত বয়স্কদের চার গ্রাম অর্থ্যাৎ আটটি ট্যাবলেট এর বেশি কোনোভাবেই একদিনে গ্রহণ করা যাবে না । একদিনে আটটির বেশি ট্যাবলেট সেবন করলে তা মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

৪. কোনো ওষুধের কার্যকরিতা বৃদ্ধির লক্ষে প্যারাসিটামল মিশ্রিত করা আছে কিনা এ বিষয়ে অবগত থাকতে হবে । এক্ষেত্রে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ  নিতে হবে।

৫. কখনো অ্যাকোহল পান করার পর প্যারাসিটামল খাওয়া যাবে না ।

৬. এই ঔষধটি খাওয়ার পর অ্যালার্জি, শ্বাসকষ্ট জাতীয় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলে দ্রুত ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

৭. পাকস্থলীতে ব্যথা,অতিরিক্ত ঘাম ,বমি বমি ভাব ,বমি করা ডায়রিয়া ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দিলে প্যারাসিটামল গ্রহনকারীকে দ্রুত হাসপাতালে নিতে হবে ।

৮. ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া প্যারাসিটামল খেলে সঠিক নির্দেশিকা, যেমন-  জ্বরের জন্য সর্বোচ্চ তিন দিন ,ব্যথার জন্য সর্বোচ্চ দশ দিন এরুপ নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে।

৯. গর্ভবতী মহিলা ও দুগ্ধবতী মায়েদের ক্ষেত্রে প্যারাসিটামল খাওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

১০. সঠিক নির্দেশনা অনুযায়ী খেলে এটি একটি নিরাপদ ওষুধ কিন্তু অতিমাত্রায় গ্রহন বা দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে কিডনী ও লিভার এর মারাত্মক ক্ষতি হওয়ার ঝুকি থাকে ।

আজকের এই পোস্টটিতে আমি চেষ্টা করেছি আপনাদেরকে এমন কিছু তথ্য দিতে যা জেনে আপনারা উপকৃত হবেন। শুধু প্যারাসিটামলই নয় যে কোন ধরনের ঔষধই সেবন করার পূর্বে  অবশ্যই একজন বিশেষজ্ঞা ডাক্তারের পরামর্শ  নিবেন। ঔষধ যেমন আমাদের জীবন রক্ষা করে তেমনি ঔষধের অস্বাভাবিক ব্যবহারই আবার ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

আশা করছি আজকের এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে। এই পোস্টটি সম্পর্কে আপনাদের যে কোন মতামত থাকলে কিংবা আপনাদের যে কোন জিজ্ঞাসা আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। নতুন পোস্টে আবার নতুন কোন বিষয় নিয়ে হাজির হবো। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন এই আশা করে আজ এখানেই বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ হাফেজ।

Comments

comments

Share This Post

One Response to "জেনে নিন প্যারাসিটামল সম্পর্কে ১০টি অজানা তথ্য যা আপনার কাজে লাগবে"

Post Comment