রসুনের উপকারিতা ও গুণাগুণ সম্পর্কে জেনে নিন মজার কিছু তথ্য

রসুনের উপকারিতা ও গুণাগুণ সম্পর্কে জেনে নিন মজার কিছু তথ্য

আদিমকাল থেকে রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বৃদ্ধি করতে রসুনকে মসলা হিসেবে ব্যবহার করছে মানুষ। রসুন একটি মসলাজাতীয় খাবার হলেও রসুনের উপকারিতা নিয়ে অজানা অনেকেই। মূলত, রান্নায় স্বাদ আনতেই রসুন ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পুষ্টিমানের দিক বিবেচনা করলে মসলার তালিকায় রসুনের অবস্থান একদম উপরের দিকেই দিতে হয়। যদিও আমরা কেবল রান্নার ক্ষেত্রেই রসুনকে ব্যবহার করে থাকি, কিন্তু রসুন একটি বহুমুখী ঔষধ হিসেবে ব্যাপক পরিচিত। রসুনের রয়েছে নানাবিধ ঔষধি গুণ। আজকে আপনাদের সামনে তুলে ধরবো রসুনের উপকারিতা সম্পর্কে এমন কিছু যা আপনারা জানলে সত্যি অবাক হবেন।
রসুনকে বলা হয়ে থাকে গরীবের পেনিসিলিন। ছোটবড় অনেক রোগেরই উত্তম প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে রসুন। রসুনের মধ্যে রয়েছে: প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, রিবোফ্লাবিন, ফসফরাস, অ্যালুমিনিয়াম, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন-সি সহ আরো নানা উপাদান। এটা একাধারে এন্টিবায়োটিক, এন্টিসেপটিক, এন্টিভাইরাল, এন্টি-ফাংগাল হিসেবে কাজ করে। তো চলুন দেরি না করে রসুনের উপকারিতা সমূহ জেনে নিই।

রসুনের উপকারিতা

প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক: রসুন একটি দারুণ অ্যান্টিবায়োটিক। রিসার্চে দেখা গেছে, সকালে খালি পেটে এক কোয়া রসুন খেলে তা অ্যান্টিবায়োটিকের মত কাজ করে শরীরে। ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসের কাজে রসুন অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা রাখে।

  • হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

অনেকেই আছেন যারা উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যায় ভোগেন। উচ্চ রক্তচাপ জনিত সমস্যার কারণে হৃদরোগের সম্ভাবনাও বেড়ে যায়। তবে আপনি যদি নিয়মিত রসুন খান তবে এটি আপনার রক্তচাপকে স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে।

  • শরীরের বিষক্রিয়া দূর করে

আমাদের শরীর হলো এক একটি রাসায়নিক ল্যাবরেটরী। প্রতিনিয়ত লক্ষ কোটি রাসায়নিক বিক্রিয়া সম্পন্ন হয় আমাদের শরীরে। শারীরবৃত্তীয় বিভিন্ন কাজে অনেক সময় শরীরে নানা ধরনের বিষাক্ত পদার্থ তৈরী হয়। এসব ক্ষেত্রে রসুন খুবই ভালো ভূমিকা রাখতে পারে। রসুন শরীরের বিষাক্ত পদার্থকে শরীর থেকে বের করে দিতে সাহায্য করে। এর ফলে কিডনি সুস্থ থাকে ও এর কার্যকরিতা বৃদ্ধি পায়।

আরো পড়তে পারেন: আপেলের উপকারিতা ও স্বাস্থ্য গুণাগুণ – যা জানলে অবাক হবেন আপনিও

  • পরিপাকে সাহায্য করে

প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অন্তত একটি রসুন রাখতে পারলে তা আপনার পরিপাকজনিত যে কোন সমস্যা দূর করতে সাহায্য করবে। রসুন অন্ত্রের ক্ষুদ্রান্তকে অধিক পাঁচনের ক্ষেত্রে সহায়তা করে। এর ফলে দেহের পরিপাক পদ্ধতি স্বাভাবিক থাকে। যাদের গ্যাস্ট্রিক জনিত সমস্যা আছে তাদের ক্ষেত্রেও রসুন খুব উপকারী। কারণ রসুন গ্যাস্ট্রিক গ্রন্থির ক্ষয় জনিত সমস্যা দূর করে।

  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি

রসুন আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। তবে রসুন চিবিয়ে খাওয়ার চেয়ে সম্পূর্ণ গিলে খেতে পারলে সবচেয়ে বেশি ভাল হয় বলে ধারণা করা হয়। রসুনের উপকারিতা অনেক বেশি হওয়ার একটি অন্যতম কারণ হলো এর মধ্যে নানা ধরনের রোগ প্রতিরোধ করার উপাদান রয়েছে। তাই রসুন স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারি।

  • হজমের সমস্যা দূর করে

ঘি এর মধ্যে ২ থেকে ৩টি রসুনের কোয়া কুচি করে রেখে দিন। এভাবে নিয়মিত রসুন খেতে পারলে তা হজমের সমস্যা দূর করে। কোষ্টকাঠিন্যের সমস্যা দূর করতেও রসুন ভূমিকা রাখে।

  • যৌন শক্তি বৃদ্ধি করে

যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধিতে রসুনের কোন জুড়ি নেই। উন্নত মানের শুক্রাণু তৈরী করতে রসুন ব্যাপক সাহায্য করে। প্রতিদিন খালি পেটে কিংবা রুটির সাথে ১ থেকে ২ কোয়া রসুন খেলে তা আপনার যৌন শক্তিকে অনেকাংশে বাড়িয়ে তুলবে। যৌন অক্ষমতার অন্নতম একটি কারণ হলো স্পার্ম বা শুক্রাণু উৎপাদনে অক্ষমতা। এ সমস্যা দূরীকরণে রসুন খুবই উপকারী।

  • হার্টকে সুস্থতা রাখে

রক্তের কোলেস্টরেলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে রসুন খুব ভালো কাজ করে। এ কারণে হার্টের রোগীদেরকে রসুন খেতে পরামর্শ দেয়া হয়। রসুনের মধ্যে এলিসিন নামক এক ধরনের বিশেষ যৌগ রয়েছে। এলিসিন একটি ঔষধি গুণ সম্পন্ন উপাদান। ফলে নিয়মিত রসুন খেলে তা আপনাকে হার্টের সমস্যা থেকে দূরে রাখবে।

আদিমকাল থেকেই রসুন নানাবিধ কাজে ব্যবহার হয়ে আসছে। জানা যায়, অলিম্পিকের খেলোয়াড়দেরকে প্রতিযোগীতায় ভালো করার জন্য খাবারের সাথে রসুন খেতে দেয়া হতো। চীন ও জাপানের অনেক দেশেও রসুনকে ঘরোয়া চিকিৎসার জন্য ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। রসুনের উপকারিতা এতই বেশি যে রসুনকে প্রক্রিয়াজাত করে বিভিন্ন ধরনের আচার, চাটনি, চিপস ইত্যাদি তৈরী করে ঔষধের মতো বাজারজাত করা হয়।

তবে রসুন শরীরের জন্য খুবই উপকারী হলেও এর কিছু অপকারিতাও আছে। যাদের শরীরে রক্তপাত হলে সহজে বন্ধ হয় না তাদের জন্য রসুন খাওয়া একটু বিপদজনক। কারণ রসুন রক্তের জমাট বাঁধার প্রক্রিয়াকে বাঁধাগ্রস্থ করে। এ কারণে যাদের এই সমস্যা তারা অতিরিক্ত রসুন খাওয়াকে এড়িয়ে চলা উচিত। তবে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকলেও সার্বিক মূল্যায়নে রসুন নিঃসন্দেহে একটি ঔষধি গুণ সম্পন্ন খাদ্য উপাদান। দৈনন্দিন জীবনে সুস্থ সুন্দর জীবন যাপনের জন্য রসুনের উপকারিতা ব্যাপক ও বিস্তৃত।

আশা করছি রসুনের উপকারিতা নিয়ে লিখা এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে। রসুনের গুণাগুণ নিয়ে আপনাদের কোন জিজ্ঞাসা কিংবা মতামত থাকলে আমাদের কে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। পরবর্তী পোস্টে নতুন বিষয় নিয়ে কথা হবে। সেই পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন এবং নিয়মিত আমাদের সাইটটি ভিজিট করুন। ধন্যবাদ।

Garlic is a spicy food. Basically, garlic is used to bring the taste to the cooking. Considering the nutritional aspects, the position of garlic in the spicy list is to be given at the top. Although we only use garlic for cooking, but garlic is widely known as a versatile medicine. Garlic has many medicinal properties. There are many medicinal properties of garlic. Garlic is said to the penicillin for poor people. Garlic works as a good antidote to many diseases of many diseases. Garlic includes: protein, carbohydrate, riboflavin, phosphorus, aluminum, calcium, vitamin C and many other components. It acts as an antibiotic, antiseptic, antiviral, anti-finger. Today, I will show you some of the garlic qualities that you would be surprised if you knew.

Comments

comments

Share This Post

Post Comment